ভুলের মাশুল যেভাবে দিবেন

ভুলের মাআমার স্ত্রী নিশির সাথে স*হবাস করার সময় বুঝতে পেরেছিলাম যে নিশি ভা*র্জিন ছিলো না।

কেননা এখন কার যুগে কোন মেয়ে ভা*র্জিন কি না সেটা বুঝার অনেক উপায় ই বের হয়েছে।

তার মধ্যে সব চেয়ে কমন যেটা সেটা হলো
সহবাসের সময় র*ক্তপা*ত।

কোন মেয়ের সাথে সহবাস করার সময় যদি আপনি ঐ মেয়েকে স্প*র্শ করা প্রথম ব্যাক্তি হয়ে থাকেন।
তাহলে মেয়ের র*ক্তপা*ত হবে এটাই সাভাবিক বা এটাই আমরা জানতাম।

আর আমিও সেটার উপরই ভর করে বলছি,,, আমার স্ত্রী নিশি ভা*র্জিন ছিলো নাহ।

নিশির আমার সাথে সহবাসে র*ক্ত*পাত হয় নি তার মানে,,, নিশি ভা*র্জিন না।
আর ভা*র্জিন না হওয়ার একটাি কারণ
আমি তার জীবনে প্রথম পুরুষ না।
তার মানে নিশি এর আগেও অন্য কারো সাথে ওসব করেছে??
কথাটা ভাবতেই বুকে কেমন একটা ব্যাথা অনুভব করলাম।

ব্যালকনিতে দাড়িয়ে এসব নিয়ে ভাবছি এমন সময় নিশি চা নিয়ে এসে পিছন থেকে ডেকে বললো,,,,

এই নাও তোমার চা,,,,

আমি পিছনে ঘুরে চায়ের কাপটা হাত বারিয়ে নিলাম।

চায়ের কাপটা আমাকে দিয়ে নিশি বললো,,,,,
নামাজ পরে ব্যালকনিতে কেন আসতে হবে শুনি??

এমনি,,,,

ফজরের নামাজ পরে আমি না ঘুমালেও নিশি ঘুমিয়েছিলো।

নিশি নামাজ পড়ে ঘুমানোর পর।
আমি না ঘুমিয়ে
ওর ঘুমন্ত চেহারাটা কিছুক্ষণ মন ভরে দেখি। । কিন্তু নিশি সেটা জানে না কারণ ও ঘুম থেকে উঠার আগেই আমি ব্যালকনিতে চলে আসছি।

আমাদের বিয়ে ৪ মাস আগে হয়েছিলো।
কাল আমরা এই ফ্লাটে উঠেছি,,,
এবং কালই হয়েছে আমাদের প্রথম বাসর রাত।

আসলে আমাদের বিয়েটা ৪ মাস আগে হলেও আমরা সে রকম ভাবে
একে অপরের কাছে আসতে পারিনি।
তাই কাল ই প্রথম বাসর হয় আমাদের।
এখন আমাদের বললে ভুল ই হবে।
বলতে হবে প্রথম বাসর ছিলো আমার।
নিশির না,, কারণ সে তো অনেক অগেই এসব সেরে বসে আছে।

আর চার মাস পর দুজনের মিলন হওয়ার কারণ ছিলো

আমার নতুন চাকরি,
নতুন অফিস,
নতুন কলিগদের সাথে পরিচয়,
নিশির ভার্সিটি পরিক্ষা, ফ্লাট নিয়ে জামেলা
এই সব কিছুর মাঝে
নিশির বাধা তো আছেই।
সব কিছু মিলিয়ে কখন যে ৪ মাস কেটে গেলো বুঝতেই পারিনি

নিশির সাথে আমার বিয়েটা হয়,,,,, না পারিবারিক ভাবে।
আবার না প্রেম করে।

মানে হঠাৎ একদিন fb তে চ্যাটিং তারপর পরিচয়
হুট করেই বিয়ে।
আমার বিয়ে করার ইচ্ছা না থাকলেও নিশির কথায় রাজি হয়েছিলাম।
কারণ নিশি দেখতে যতেষ্ট সুন্দরী,
ওর বাবা ঢাকা শহরের নাম করা বিজনেজ ম্যানদের একজন।

এরকম একটা মেয়ে আমার মতো ছেলেকে বিয়ের কথা বললে কি আর না করতে পারি….?

আর নিশিকে বিয়ে করার পর সব পেয়েছি,,,
চাকরি,,
এই নতুন ফ্লট টা।
তখন বুঝিনি নিশির মতো মেয়ে হঠাৎ করে কেন আমাকে বিয়ে করতে চাচ্ছে।
কিন্তু তখন না বুঝলেও এখন বুঝতে পারছি নিশি কেন আমাকে বিয়ে করেছে।

কি হলো,,,, চুপ করে দাড়িয়ে কি ভাবছো? (নিশি)

ওওহহুম বলো

নিশি আমাকে জরিয়ে ধরে বললো,,,,, সকালের শহর কতো সুন্দর তাই না?

হুমম
আমি শুধু নিশিকে দায় সারা জবাব দিচ্ছি,,,
কারণ এরকম মেয়ের সাথে আর কেন জানি কথা বলতে ইচ্ছে করছে না।

নিশি তার হাত দিয়ে আমাকে আরো শক্ত করে জরিয়ে ধরে আমার কানে একটা কিস করে বললো
I love uuuuuuuuu

আমারো খুব ইচ্ছা করছিলো,,,,,
নিশিকে জরিয়ে ধরে বলি
love u 2
কিন্তু কেন জানি বলতে পারছিলাম না।

মনের মধ্যে একটাই প্রশ্ন ঘুর পাক খাচ্ছিলো
সেটা হলো
নিশি তাহলে ওর পাপ ঢাকার জন্য এসব করেছে আমার সাথে?

ছোট বেলা থেকে জেনে আসতেছি
যে যেমন তার জীবন সঙ্গিনি হয় তেমন।

তাহলে আমি কেন এমন কাউকে পেলাম???

কি হলো কথা বলছো না কেন?
আমাকে ঝাকা দিয়ে বললো নিশি।

আমি চুপ,,,,
অনেক কিছু বলতে ইচ্ছে করছে কিন্তু পারছি না।

কি ভাবছো তুমি বলতো।
তখন থেকে দেখছি কি নিয়ে যেন ভাবছো।

আরে কিছু না,,,,

কিছুনা তো কি?
দীর্ঘ ৪ মাস পর আমরা এক হলাম,,, কোথায় কিছু রোমান্টিক কথা বলবে তা না করে মন ভার কর দাড়িয়ে আছো।
কেন?

বাবা মায়ের কথা মনে পড়ছে।

ওলে আমার বাবু লে,,,,, বউয়ের কথা মনে পড়ে না…?

ফাইজলামি করবা না নিশি

বলেই
নিশেকে সরিয়ে দিয়ে রুমে চলে আসলাম।
এসে ভাবলাম বাসায় কল করে একটু কথা বলি এতে মনটা হয়তো একটু সায় পাবে।
তাই মোবাইলটা নিয়ে মাকে কল দিলাম।
আসলে আমি মনে করি প্রতিটা ছেলে তার মাকে একটু বেশি ভালবাসে।
আর মায়ের সাথে যা পারে সেয়ার করে।

হ্যালো বাবা….? (মা)

হুমমম,,, কেমন আছো মা?

আমি ভালো আছি,,,,, তুই ভালো আছিস?

আছি,,, ভালই আছি,,,,,
বাবাকে ঠিক মতো ঔষধ দিচ্ছো তো?

হুমম

এরকম আরো অনেক কথা হলো,,,,,
কিন্তু নিশির বিষয়ে কিছু বলতে গিয়েও পারলাম না।

রুমে বসে আছি,,, এমন সময় নিশি আসলো রুমে।

এসে বললো,,,,,,
আমাকে ওভাবে ফেলে আসলে কেন….?

মানে…..?

মানে ওভাবে আমার হাত সরিয়ে দিয়ে চলে আসলে কেন?
এতো সাহস

Leave a Comment